Institute: Khulna University (KU)
Class: Honours 1st Year
Date: 08 Aug, 2018

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ স্নাতক(সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে অনলাইনে ভর্তির আবেদন করা যাবে এবং তা চলবে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬টি স্কুল ও ২টি ইন্সটিটিউটের অন্তর্ভুক্ত ২৯টি ডিসিপ্লিনের ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ স্নাতক(সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি করা হবে।
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোটাসহ মোট আসন ১,২২৯টি। গত বছর ২৮টি ডিসিপ্লিনে মোট ১,১৯৯ আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়েছিল। গতবারের তুলনায় এবার ৩০টি আসন বাড়ানো হয়েছে।

In 2018, University of Grant Commission (UGC) approved 41 Public University in Bangladesh. See all Public University Admission information, circular, notice, guideline 2018-2019 in one page.

আবেদনের সাধারন যোগ্যতাঃ
khulna-university-1
স্কুল/ইনস্টিটিউটভিত্তিক আবেদনের যোগ্যতা ও তথ্যাবলীঃ

khulna-university-2

Khulna-university-3

আবেদন করার নিয়মাবলীঃ

khulna-university-4

আবেদন ফি প্রদানের নিয়মাবলীঃ

khulna-university-5

স্কুল/ইনস্টিটিউটভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ও সময়ঃ .

khulna-university-6

পরিচিতিঃ খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের একটি সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়। এটি দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর খুলনাতে অবস্থিত। এটি বাংলাদেশর একমাত্র রাজনীতি মুক্ত সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। ১৯৮৭ সালের ৪ জানুয়ারি গেজেটে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় সরকারি সিদ্ধান্ত প্রকাশিত হয়। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয় ১৯৯১ সালের ২৫ নভেম্বর ৪টি ডিসিপ্লিন এর ৮০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ টি স্কুল ও একটি ইন্সিটিউট এর অধীনে শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ৫ হাজার জন এবং প্রতিবছর ২৮ টি ডিসিপ্লিনে শিক্ষার্থী ভর্তি করানো হয়। এটি ছাত্র রাজনীতি মুক্ত বাংলাদেশের একমাত্র সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়।

ইতিহাসঃ ১৯৭৪ সালে ড. কুদরত-ই-খুদা শিক্ষা কমিশনের রিপোর্টে খুলনা বিভাগে উচ্চ শিক্ষার্থে একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার সুপারিশ করা হয়। ১৯৭৯ সালের ১০ নভেম্বর তৎকালীন সরকারের ক্যাবিনেটে খুলনায় একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের সিদ্ধান্ত হয়। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন অধ্যাদেশ ৫(১)জি ধারা মতে খুলনা বিভাগে একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য ১৯৮৩ সালে সরকারের কাছে প্রস্তাব পেশ করা হয়। ১৯৮৬ সালের ১৬ ডিসেম্বর খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়। ১৯৮৭ সালের জানুয়ারি ৪ গেজেটে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণা দেওয়া হয়। ১৯৮৯ সালের ৯ মার্চ তৎকালীন রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। ১৯৮৯ সালের ১ অগাস্ট বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. গোলাম রহমানকে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম প্রকল্প পরিচালক এবং পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। ১৯৯০ সালের ৩১ জুলাই তারিখে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় আইন সংসদে পাস হয় যা এই প্রতিষ্ঠানের কার্যবিধি নিয়ন্ত্রণ করে। অবশেষে, ১৯৯১ সালের ২৫ নভেম্বর একাডেমিক কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। ঐ বছর থেকে মোট চারটি ডিসিপ্লিনে ৮০ জন ছাত্রছাত্রী নিয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় যাত্রা শুরু করে।