Institute: Islamic University (IU)
Class: Honours 1st Year
Date: 28 Jul, 2019

আজ রবিবার রোজ ২৮/০৭/২০১৯ কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেলা ১১টার সময় প্রশাসন ভবনের মিলনায়তনে কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভাপতি ও উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. হারুন-উর-রশিদ আসকারীর সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তির আবেদন ফরম ২ সেপ্টেম্বর থেকে বিতরণ করা হবে। অনলাইনের মাধ্যমে এ ফরম বিতরণ চলবে ১ অক্টোবর পর্যন্ত। ৪/১১/২০১৯ থেকে ০৮ নভেম্বর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হবে ১৫ নভেম্বর। মেধা ও অপেক্ষমাণ মেধার ভর্তি চলবে ৩০ নভেম্বর থেকে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তির জন্য ৫টি অনুষদের ৩৩টি বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা মোট ৪টি ইউনিটের (ইঊনিট কোড যথাক্রমে A, B, C, D) মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে। এই বছর বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫টি অনুষদের অধীনে মোট ৩৩টি বিভাগে ২ হাজার ২৭৫ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হতে পারবে।

In 2019, University of Grant Commission (UGC) approved 41 Public University in Bangladesh. See all Public University Admission information, circular, notice, guideline 2019-2020 in one page.

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি বিজ্ঞপ্তিঃ

বিস্তারিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হওয়ার সাথে সাথেই আমরা আপনাদের জানিয়ে দিব।

গত বছরে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি বিজ্ঞপ্তিঃ

ইসলামী-বিশ্ববিদ্যালয়ে

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ডাউনলোড করার জন্য ক্লিক করুন।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি নির্দেশিকাঃ

ইসলামী-বিশ্ববিদ্যালয়ে-1
ইসলামী-বিশ্ববিদ্যালয়ে-2
ইসলামী-বিশ্ববিদ্যালয়ে-3
ইসলামী-বিশ্ববিদ্যালয়ে-4
ইসলামী-বিশ্ববিদ্যালয়ে-5
ইসলামী-বিশ্ববিদ্যালয়ে-6

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি নির্দেশিকা ডাউনলোড করার জন্য ক্লিক করুন।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্ষিপ্ত পরিচিতিঃ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইংরেজি: Islamic University) স্বাধীনতার পর বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত প্রথম সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে এটিই দেশের সর্বোচ্চ ইসলামী বিদ্যাপীঠ। দেশে শুধুমাত্র এই বিশ্ববিদ্যালয়টিতেই ধর্মতত্ব ও ইসলামী আইনের উপর স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী প্রদান করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়টি আর্থিকভাবে ইসলামী সম্মেলন সংস্থার সাহায্য পরিচালিত হয়। ইসলামী শিক্ষার উন্নতি সাধনের লক্ষ্যে ১৯৮০ সালে খুলনা বিভাগের কুষ্টিয়া জেলায় প্রতিষ্ঠানটি গঠন করা হয়। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ১৯৮৬ সালের ২৮ জুন তাদের একাডেমিক কার্যক্রম শুরু করেন।

স্বাধীনতার পর বাংলাদেশ সরকার ১ ডিসেম্বর ১৯৭৬ সালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেয়। ১৯৭৭ সালের ২৭ জানুয়ারি প্রফেসর এম. এ. বারীকে সভাপতি করে ৭ সদস্যবিশিষ্ট ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় পরিকল্পনা কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি ২০ অক্টোবর ১৯৭৭ সালে রিপোর্ট পেশ করে। কমিটির সুপারিশে থিওলজি এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ অনুষদের অধীন (১) আল-কুরআন ওয়া উলূমুল কুরআন, (২) উলূমুত তাওহীদ ওয়াদ দা‘ওয়াহ, (৩) আল হাদীস ওয়া উলূমুল হাদীস, (৪) আশ-শরীয়াহ ওয়া উসূলুস শরীয়াহ, এবং (৫) আল ফাল সাফাহ ওয়াততাসাউফ ওয়াল আখলাক বিভাগ, মানবিক ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের অধীন (১) আরবী ভাষা ও সাহিত্য, (২) বাংলা ভাষা ও সাহিত্য, (৩) ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, (৪) অর্থনীতি, (৫) লোক প্রশাসন, (৬) তুলনামূলক ধর্মতত্ত্ব, (৭) ভাষাতত্ত্ব, এবং বাণিজ্য বিভাগ এবং বিজ্ঞান অনুষদের অধীন (১) পদার্থ বিজ্ঞান, (২) গণিত, (৩) রসায়ন, (৪) উদ্ভিদবিদ্যা, এবং (৫) প্রাণিবিদ্যা বিভাগ প্রতিষ্ঠার কথা উল্লেখ করা হয়।

৩১ মার্চ-৮ এপ্রিল ১৯৭৭ সালে মক্কায় ওআইসি-এর উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মুসলিম বিশ্বের রাষ্ট্রপ্রধান ও সরকার প্রধানদের এক সম্মেলনে বিভিন্ন মুসলিম রাষ্ট্রে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার সুপারিশ করা হয়। এই সুপারিশের ভিত্তিতে ২২ নভেম্বর ১৯৭৯ সালে কুষ্টিয়া শহর থেকে ২৪ কিলোমিটার দক্ষিণে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের পাশে শন্তিডাঙ্গা-দুলালপুর নামক স্থানে ১৭৫ একর জমিতে রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।